ঢাবি অধিভুক্ত সাত কলেজ এবং সাত কলেজ পরিচিতি

ঢাবি মানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সাত কলেজের সাথে আমরা সকলেই কম বেশি পরিচিত।কারন যখন এইচএসসি পাস করে অনার্স পড়ার জন্য এডমিশনের সময় এসে যায় তখন অনেকেরই পছন্দের তালিকায় থাকে ঢাবি অধিভুক্ত সাত কলেজ।কিন্তু আমরা অনেকেই সাত কলেজ সম্পর্কে খুব বেশি অবগত নই।শুধু নামমাত্র আমরা সাত কলেজের সাথে পরিচিত।ঢাবি অধিভুক্ত সাত কলেজ এর সবগুলো কলেজের নাম এবং তাদের পরিচিতি আমরা অনেকেই জানি না।তাই আজকে আপনাদের জন্য সাত কলেজের নাম থেকে শুরু করে কলেজগুলো কোথায় অবস্থিত এবং তাদের ইতিহাস কি সব বিষয় আপনাদের সামনে তুলে ধরবো।তাই খুব মনোযোগ সহকারে পুরো আর্টিকেলটি পড়তে থাকুন।

২০১৭ সালে ঢাকার ঐতিহ্যবাহী সাতটি কলেজ নিয়ে গঠিত হয় ঢাবি অধিভুক্ত সাত কলেজ।পূর্বে এটি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত ছিলো।অর্থাৎ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় দ্বারা তারা পরিচালিত হতো এবং সার্টিফিকেট পেতো।কিন্তু ২০১৭ সালে তারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে চলে যায়।এখন এই সাতটি কলেজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়।সাত কলেজের যেকোনো প্রাতিষ্ঠানিক কার্যক্রম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কতৃক পরিচালিত হয়ে থাকে।সাত কলেজের সার্টিফিকেটে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম উল্লেখ থাকে।কিন্তু তার পাশেই বড় করে স্ব স্ব কলেজের নাম এবং বিভাগ উল্লেখ থাকবে।সাত কলেজের ভর্তি থেকে শুরু করে পরীক্ষা পর্যন্ত সকল কার্যক্রম পরিচালনা হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দ্বারা।

ঢাবি অধিভুক্ত সাত কলেজের নাম

১.ঢাকা কলেজ
২.ইডেন মহিলা কলেজ
৩.সরকারি তিতুমীর কলেজ
৪.সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ
৫.কবি নজরুল কলেজ
৬.মিরপুর সরকারি বাঙলা কলেজ
৭.বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ

এই সাতটি কলেজের মধ্যে একটি কলেজ সম্পূর্ণ ছেলেদের।সেটি হলো ঢাকা কলেজ।ঢাকা কলেজে শুধুমাত্র ছেলেরাই পড়াশোনা করে থাকে।তাছাড়া এরমধ্যে দুইটি কলেজ সম্পূর্ণ মেয়েদের।এই দুটি কলেজ হলে ইডেন মহিলা কলেজ এবং বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ।এবং বাকি চারটি কলেজে ছেলে-মেয়ে উভয়ই পড়াশোনা করে থাকে।সাতটি কলেজেই ঢাকার গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে অবস্থিত।এখন আমরা এই সাত কলেজের পরিচিতি জানবো।তাহলে চলুন এক এক করে সাতটি কলেজের পরিচিতি জানা যাক।

ঢাকা কলেজ

ঢাকা কলেজ বাংলাদেশের একটি প্রাচীনতম ঐতিহ্যের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।এটি ঢাকার প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত। কলেজটি আগে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে থাকলেও এখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত।১৮৪১ খ্রিষ্টাব্দের ২০ই নভেম্বর তারিখে উপমহাদেশের প্রথম আধুনিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেব ঢাকা কলেজ প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো।কেমব্রীজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র এবং হিন্দু কলেজের শিক্ষক জে. আয়ারল্যান্ড ছিলো ঢাকা কলেজের প্রথম প্রিন্সিপাল।কলেজের লাইব্রেরিতে আছে সজ্জিত পাঠকক্ষ সহ ৫০,০০০ বই রয়েছে। গ্রন্থাগারটি প্রতিদিন দুই শতাধিক শিক্ষার্থীকে পাঠ্য সহায়তা সরবরাহ করতে সক্ষম।এটি সকাল ৮ টায় খোলা হয় এবং বিকেল ৪টায় বন্ধ হয়ে যায়।

ঢাকা কলেজের বিভাগ সমূহগুলো হলো

১.দর্শন
২.ব্যবস্থাপনা
৩.হিসাববিজ্ঞান
৪.প্রাণিবিজ্ঞান
৫.রসায়ন
৬.গণিত
৭.পদার্থবিজ্ঞান
৮.ইতিহাস
৯.রাষ্ট্রবিজ্ঞান
১০.ইসলামের ইতিহাস এবং সংস্কৃতি
১১.সমাজবিজ্ঞান
১২.মনোবিজ্ঞান
১৩.বাংলা
১৪.পরিসংখ্যান
১৫.ইংরেজি
১৬.উদ্ভিদবিজ্ঞান
১৭.অর্থনীতি
১৮.ইসলামি শিক্ষা
১৯.ভূগোল ও পরিবেশবিজ্ঞান

কলেজের ছাত্র হল গুলো হলো

ঢাকা কলেজে ৮টি ছাত্রাবাস রয়েছে।ছাত্রাবাস গুলো হলোঃ

১. উত্তর ছাত্রাবাস
২. দক্ষিণ ছাত্রাবাস
৩. পশ্চিম ছাত্রাবাস
৪. আন্তর্জাতিক ছাত্রাবাস
৫. আখতারুজ্জামান ইলিয়াস হল
৬. শহীদ ফরহাদ হোসেন ছাত্রাবাস
৭. দক্ষিণায়ন ছাত্রাবাস
৮. শেখ কামাল ছাত্রাবাস

ইডেন মহিলা কলেজ

ইডেন মহিলা কলেজ ঢাকা শহরে অবস্থিত একটি মহিলা কলেজ। মূলত একে ইডেন কলেজ বলা হয়। এটি ঢাকার আজিমপুরে অবস্থিত। এই কলেজটি অনেক প্রাচীন, এবং এটি ১৮৭৩ খ্রিস্টাব্দে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো। এই কলেজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত বর্তমানে।কিন্তু আগে তা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ছিলো।কলেজটিতে প্রায় ৩৫ হাজার শিক্ষার্থী আছে।এবং শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে একটি সুন্দর লাইব্রেরী। লাইব্রেরিতে প্রায় ৪৪,০০০ টি বই ও ২০০০ টি জার্নাল রয়েছে। লাইব্রেরীটি কলেজ প্রাঙ্গনের ৪ নং ভবনে অবস্থিত।তাছাড়া চিকিৎসা প্রদানের জন্য কলেজ প্রাঙ্গনে একটি চিকিৎসা কেন্দ্র রয়েছে।কলেজে শিক্ষার্থীদের জন্য একটি সুন্দর ক্যান্টিন রয়েছে। ক্যান্টিনে সকালের নাস্তা, দুপুরের খাবার ও বিকালের নাস্তাসহ বিভিন্ন ধরনের খাবার পাওয়া যায়।

ইডেন কলেজে মোট ৬ টি ছাত্রীনিবাস রয়েছে।
১.খোদেজা খাতুন
২.জেবুন্নেসা হোস্টেল
৩.রাজিয়া বেগম ছাত্রী নিবাস
৪.হযরত আয়েশা সিদ্দিকা ছাত্রী নিবাস
৫.হাসনা বেগম ছাত্রী নিবাস
৬.বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা হল

সরকারি তিতুমীর কলেজ

সরকারি তিতুমীর কলেজ বাংলাদেশের ঢাকা শহরে অবস্থিত একটি সরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।ঢাকার মহাখালী এলাকায় এর অবস্থান। এই কলেজটি ১৯৬৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলোকিন্তু সেসময় কলেজটি জিন্নাহ কলেজ নামে পরিচিত লাভ করেছিলো। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর কলেজটির নাম পরিবর্তন করে সরকারি তিতুমীর কলেজ নামকরন করা হয়। কলেজটি ঢাকা শহরের মহাখালী এলাকায় অবস্থিত। যার আয়তন প্রায় ১১ একরের কাছাকাছি।কলেজটিতে বর্তমানে ৬০,০০০ এর বেশি ছাত্র-ছাত্রী রয়েছে।

ছাত্র-ছাত্রীদের যাতায়াতেরজন্য ৫ টি বাস রয়েছে।সেগুলো হলো:
১.BRTC লাল বাস
২.সম্পর্ক
৩.অগ্নিবীণা
৪.সোনার তরী
৫.সাদা বাস

কলেজটির ছাত্র-ছাত্রীর জন্য তিনটি আবাসিক হল রয়েছে।এগুলো হলো:
১.আক্কাছুর রহমান আঁখি ছাত্রাবাস।
২.সুফিয়া কামাল ছাত্রী নিবাস।
৩.সিরাজ ছাত্রী নিবাস।
*দুইটি দশ তলা হল নির্মাণের কাজ চলছে।

বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ

বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা শহরে অবস্থিত একটি সরকারি মহিলা কলেজ। কিন্তু একে বদরুন্নেসা কলেজ বলা হয়ে থাকে। ঢাকার বকশিবাজার এলাকায় এটি অবস্থিত।কলেজটি ১৯৪৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো।

আরো পড়ুন: গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি তথ্য

সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ

সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ পুরনো ঢাকায় অবস্থিত। লক্ষ্মীবাজার কবি নজরুল সরকারি কলেজের পাশে অবস্থিত একটি সরকারি কলেজ। এই কলেজটিতে বর্তমানে উচ্চ মাধ্যমিক, স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে অধ্যায়নের সুব্যবস্থা রয়েছে।কলেজটি আগে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে থাকলেও ২০১৭ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি কলেজটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত হয়।কলেজটি ১৯৪৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো।কবি নজরুল সরকারি কলেজ সংলগ্ন বাহাদুর শাহ পার্ক মোড় থেকে পূর্ব দিকে লক্ষ্মীবাজার রোডের শেষ মাথায় হাতের বাম পাশে মেইন রোড থেকে কিছুটা ভিতরে গেলেই এই কলেজটি পাওয়া যাবে।

কবি নজরুল সরকারি কলেজ

কবি নজরুল সরকারি কলেজ হলো বাংলাদেশের একটি প্রাচীনতম ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।এই কলেজটি ১৮৭৪ সাল থেকে যাত্রা শুরু করে। কিন্তু ১৯৯২ সাল থেকে এর বিশ্ববিদ্যালয় কার্যক্রম জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ছিলো।বর্তমানে যা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে আছে। কলেজটি ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হয়।তাছাড়া চিকিৎসা প্রদানের জন্য কলেজ প্রাঙ্গণে একটি চিকিৎসা কেন্দ্র রয়েছে। এটি শুধুমাত্র কলেজের ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে সীমাবদ্ধ।কলেজের মোট হল আছে ১টি। যা শুধুমাত্র ছেলেদের জন্য ব্যবহার উপযোগী। মেয়েদের জন্য এখনো পর্যন্ত কোন হলের ব্যবস্থা নেই।তাছাড়া কলেজের নিজস্ব ক্যান্টিন সুবিধা রয়েছে। এটি কলেজের শহীদ মিনার ও বিজ্ঞান অনুষদ ভবনের মাঝে অবস্থিত।

সরকারি বাঙলা কলেজ

সরকারি বাঙলা কলেজ বাংলাদেশের ঢাকা শহরে অবস্থিত। এটি একটি সরকারি কলেজ যা ১৯৬২ সালের ১ অক্টোবর প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষায় কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা ভাষাকে মাধ্যম হিসেবে পরিচয় করার চাহিদা থেকে প্রিন্সিপাল আবুল কাসেম এই কলেজটি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।কলেজটি ঢাকা শহরের ২৫ একর জমির উপর মিরপুর এলাকায় অবস্থিত।বর্তমানে কলেজটিতে ৩০,০০০ এর বেশি ছাত্র-ছাত্রী আছে।তার মধ্যে স্নাতক পর্যায়ে ২৫,০০০ এবং স্নাতকোত্তর পর্যায়ে ৫,০০০ আছে।কলেজটি ১৯৮৫ সালে সরকারিকরন করা হয়।

সাত কলেজের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

Leave a Reply